Friday, 2 January 2015

ছেলেবেলার ভাললাগা গল্প : ভুতো (অজেয় রায়)








5/9/2015

6 comments:

  1. মোক্ষম!!!!.....
    আচ্ছা ওই 'ok for puja'-র পাতা-টা এখানে দেওয়া যাবে?

    ReplyDelete
    Replies
    1. সপ্তর্ষি‚ এটা ফেসবুক বা ব্লগে দেবার মতো কিছু নয়। বলতে হয়েছে প্রসঙ্গের তাগিদে। যাই হোক‚ পাতাটির স্ক্যান ইনবক্সে পাঠানো যেতেই পারে‚ যদি দেখতে চাও। আসলে সেই আশির দশকে যাঁরা সন্দেশের পাতায় নিয়মিত লিখতেন‚ তাঁদের কারো কাছে তিন সম্পাদকের কেউই ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিলেন না। হয়তো তাই‚ ব্যাপারটাকে কখনই তেমন বিরাট কিছু বলে মনে হয়নি। ম্যানুসক্রিপ্টের এমন আরও পয়েকটি পাতা আমি নলিনীদি কাছ থেকে এনেছিলাম। কাগজপত্রের ভিতর পড়ে আছে কোথাও। খোঁজ নেই।
      নিউস্ক্রিপ্ট থেকে প্রকাশিত আমার প্রথম বই ‘বাঘবন্দি মন্তর’ বের হবার পরে নলিনীদির কাছে থেকে ঠিকানা নিয়ে বিশপ লেফ্রয় রোডের বাড়িতে গিয়েছিলাম সত্যজিত রায়কে একটি কপি দেবার জন্য। প্রধান কারণ‚ ছাপা হবার আগে তিনি বইটির প্রতিটি গল্প পড়ে সংশোধন করে দিয়েছিলেন। ওই বইয়ের ‘আরা’ নামে গল্পটি শুকতারায় প্রকাশিত হয়েছিল অন্য এক নামে। উনি পালটে দেন। নলিনীদির জন্য নিতান্ত পাকেচক্রেই হয়ে গিয়েছিল ব্যাপারটা। যাই হোক‚ বিখ্যাত মানুষটির সঙ্গে সেদিনের সেই স্মৃতি একান্তই নিজস্ব।
      আশির দশকের সেই দিনগুলো‚ হঠাতই কিন্তু হারিয়ে গেল। ১৯৯১–এর গোড়ায় ট্রান্সফারের কারণে চলে যেতে হল আসামে। দু’বছর পরে ফিরে এলাম বটে‚ তবে ততদিন সন্দেশ পত্রিকার উপর এক কথায় ঝড় বয়ে গিয়েছে। মারা গিয়েছেন পত্রিকার প্রকাশক আশোকানন্দ দাশ। তারপর সত্যজিত রায় এবং নলিনী দাশ। এর মধ্যে নলিনীদির আকস্মিক মৃত্যুই সন্দেশ পত্রিকাকে বিপর্যস্ত করেছে সবচেয়ে বেশি। বেথুন কলেজের এই প্রাক্তন অধ্যক্ষা পত্রিকার পরিচালনভার যেভাবে একা হাতে সামলাতেন‚ তার জুড়ি পরবর্তী সময়ে আর হয়নি। তবু ‘বাঙালির ছোটবেলা চারপুরষ ধরে’ চলছে এখনও।

      Delete
  2. দাদা, ছোটবেলায় আনন্দমেলা/শুকতারা/সন্দেশ গিলে খেতাম। তখন পড়া যে কয়েকটা গল্প এখনও মনে রয়ে গেছে এটা তার মধ্যে একটা। পড়তে পড়তে গায়ে কাঁটা দিচ্ছিল। অনেক ধন্যবাদ লেখাটা আবার পড়ার আর হারিয়ে যাওয়া ছোটবেলাটায় আরেকবার ফিরে যাবার সুযোগ করে দেবার জন্যে।

    ReplyDelete
  3. দাদা, ছোটবেলায় আনন্দমেলা/শুকতারা/সন্দেশ গিলে খেতাম। তখন পড়া যে কয়েকটা গল্প এখনও মনে রয়ে গেছে এটা তার মধ্যে একটা। পড়তে পড়তে গায়ে কাঁটা দিচ্ছিল। অনেক ধন্যবাদ লেখাটা আবার পড়ার আর হারিয়ে যাওয়া ছোটবেলাটায় আরেকবার ফিরে যাবার সুযোগ করে দেবার জন্যে।

    ReplyDelete
  4. খুব সুন্দর। অসাধারণ আপনার এই ব্লগ।

    ReplyDelete